আজ ২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ও ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ এবং ১৬ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

জনগণের ওপর কোনো সুপার পাওয়ার নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • In জাতীয়
  • পোস্ট টাইমঃ ২ জুলাই ২০২৩ @ ০৬:৩৮ অপরাহ্ণ ও লাস্ট আপডেটঃ ২ জুলাই ২০২৩@০৬:৩৮ অপরাহ্ণ
জনগণের ওপর কোনো সুপার পাওয়ার নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

।।নিজস্ব প্রতিবেদক।।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, সুপার পাওয়ার কাকে বলে সেটা আমরা বুঝি না। আমরা যাকে সুপার পাওয়ার বলি, সেটা হলো জনগণ। জনগণই হলো সুপার পাওয়ার। তাদের ওপর কোনো সুপার পাওয়ার নেই। রোববার দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন। বিএনপির সুপার পাওয়ার নিয়ে সরকার পতনের আন্দোলন বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আরও বলেন, জনগণকে সঙ্গে না নিয়ে যদি কোনো কিছু করা হয় তবে সেটা কোনোদিনই সফল হবে না। আমরা জনগণের সঙ্গে আছি, জনগণের শক্তিতেই আমরা চলি।
চামড়া পাচার বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমাদের বর্ডার ঠিক আছে। চামড়া নিয়ে কেউ আসতেও পারবে না যেতেও পারবে না। এবার একটি অসুবিধা হলো, সরকার নির্ধারিত দামের চেয়েও কম দামে কাঁচা চামড়া বিক্রি হয়েছে। এর কী সুফল ব্যবসায়ীরা পাবেন সেটি তারাই ভালো বলতে পারবেন।
ঈদে দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক ছিল জানিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী বলেন, অপ্রীতিকর বা বড় ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি। ছোটখাটো দুই একটি ঘটনা বাদ দিলে বড় ধরনের কোনো দুর্ঘটনা ঘটেনি। এরমধ্যে একটি ঘটনা আমাদের খুব নাড়া দিয়েছে। ঈদের পরে শনিবার এক পুলিশ কনস্টেবলকে ছিনতাইকারীরা উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করেছিল, রক্তক্ষরণে তিনি মারা গেছেন। আরেকজন সাংবাদিককেও উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করা হয়, তিনিও ছিনতাইয়ের কবলে পড়েছিলেন। এ দুটি ঘটনা ছাড়া ঢাকায় তেমন কোনো ঘটনা ঘটেনি। মোটামুটি সব জায়গায়ই খুব শান্তিপূর্ণভাবে ঈদুল আজহা উদযাপিত হয়েছে।
রাজধানীতে বিভিন্ন স্থানে ছিনতাই বাড়ায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কোনো দুর্বলতা আছে কি না- জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, দুর্বলতা নেই বলেই তো দুটি ঘটনা ঘটেছে। এরকম কিছু হলে আমি এ প্রসঙ্গটা এড়িয়ে যেতাম। আমি স্পষ্ট করে বললাম, এ দুটি ঘটনা সাতদিনের মধ্যে ঘটেছে। যেটা অনাকাঙ্ক্ষিত, যেটা হওয়া উচিত হয়নি। আমাদের কমিশনার কিছুক্ষণ আগে এসছিলেন তিনি এটা সিরিয়াসলি নিচ্ছেন। যে কারো দুর্বলতা থাকলে সেটা তিনি দেখছেন এবং ব্যবস্থা নেবেন। এ ব্যবস্থাটা আমরা করে ফেলছি।
আওয়ামী লীগ সরকার জনগণকে সঙ্গে নিয়ে চলে, সেই জনগণই বাজারে গিয়ে দেখে কাঁচা মরিচের কেজি ৮০০ থেকে ১০০০ টাকা। এ বিষয়টি সরকার কীভাবে দেখছে, জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, জনগণ ভালো করে জানে এ মৌসুমে বৃষ্টি বা বন্যা হলে কাঁচা মরিচের সংকট তৈরি হয়। কারণ, বাজারে সরবরাহ কমে যায়। সেজন্য বাসাবাড়িতে অনেকে টবে কাঁচা মরিচের চারা রোপন করেন। বৃষ্টি-বন্যা কমে গেলে কাঁচা মরিচের দামও নরমাল হয়ে যাবে। তাছাড়া শুধু কাঁচা মরিচ দিয়ে তো কারও সংসার চলে না। চাল, ডাল নিয়ে আপনারা জিজ্ঞেস করতে পারেন।
ঈদে বাস ভাড়া বেশি নেওয়ার অভিযোগ প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মালিক সমিতি বলেছে, ঈদযাত্রায় একটি বাস যখন ঢাকা থেকে কোনো এলাকায় ছেড়ে যায় তখন যাত্রীতে পরিপূর্ণ থাকে। কিন্তু ফেরার সময় একদম ফাঁকা আসতে হয়। সেটা পুষিয়ে নেওয়ার দাবি ছিল তাদের। যদিও এটি সবসময় যোগাযোগ মন্ত্রণালয় নির্ধারণ করে থাকে। এটা যোগাযোগমন্ত্রী সদুত্তর দিতে পারবেন। তিনি বলেন, আমরা সবকিছু নিয়ে আলাপ করি। গার্মেন্টসের বেতন-বোনাস যেন সময়মতো হয়ে যায় সেটা নিয়েও আলোচনা করি। রাস্তায় খানাখন্দ থাকলে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরকে জানাই। আমরা আইনশৃঙ্খলার বিষয়টি যেমন দেখি ঘরমুখো মানুষের নিরাপদ যাত্রার বিষয়েও কথা বলি।

নিউজ শেয়ারঃ

আরও সংবাদ

জনপ্রিয় সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আলোচিত সংবাদ

নিউজ শেয়ারঃ
শিরোনামঃ
Verified by MonsterInsights