আজ ২৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ও ১৬ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ এবং ১৯শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

মাদারীপুরের জন্মসনদ না পাওয়ায় উদ্যোক্তাকে কুপিয়ে জখম

  • In অন্যান্য
  • পোস্ট টাইমঃ ১৩ নভেম্বর ২০২৩ @ ০৯:৪১ পূর্বাহ্ণ ও লাস্ট আপডেটঃ ১৩ নভেম্বর ২০২৩@০৯:৪১ পূর্বাহ্ণ
মাদারীপুরের জন্মসনদ না পাওয়ায় উদ্যোক্তাকে কুপিয়ে জখম

মেহেদী হাসান সোহাগ
মাদারীপুর প্রতিনিধি।।

মাদারীপুরের শিবচরে বহেরাতলা দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদে সার্ভার সমস্যা থাকায় জন্ম সনদ না পাওয়ায় পরিষদের উদ্যোক্তা শামিম আহমেদ পলাশকে (২৯) কুপিয়ে গুরুতর আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রবিবার (১২ নভেম্বর ) রাত সাড়ে আটটার দিকে উপজেলার বহেরাতলা উত্তর ইউনিয়নের সেনেরবাড এলাকায় আড়িয়াল খাঁ নদের পাড়ে এ ঘটনা ঘটে।

আহত শামিম আহমেদ পলাশ বহেরাতলা দক্ষিণ ইউনিয়নের সরকারের চর এলাকার মজিবর রহমান বেপারীর ছেলে ও বহেরাতলা দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোক্তা হিসেবে কর্মরত।

ইউনিয়ন পরিষদ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, গত কয়েকদিন আগে বহেরাতলা উত্তর ইউনিয়নের সেনের বাড এলাকার রুবেল, আল আমীন, ইমন, হযরত ও তুষারসহ কয়েকজন যুবক বহেরাতলা দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদে একটি জন্ম সনদ আনতে যান। এসময় পরিষদের সার্ভার সমস্যা থাকার কারনে পরিষদের উদ্যোক্তা শামিম আহমেদ পলাশ তাদের সার্ভার সমস্যা কথা জানান ও কয়েকদিন পরে তাদের সনদ নিতে আসতে বলেন। এসময় তারা ক্ষিপ্ত হয়ে পলাশকে দেখে নেওয়াসহ নানাভাবে হুমকি প্রধান করে। রবিবার সন্ধ্যায় পলাশ তার এক বন্ধুর বাড়িতে মিলাদে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে শিবচর পৌরবাজারে পরিষদের একটি নষ্ট কম্পিউটার মেরামত করার জন্য আসতেছিলো। এসময় আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা রুবেল, আল আমীন ও হযরতসহ ১০/১২ জন যুবক পলাশের উপর হামলা চালায়। এসময় তাদের ছুরিকাঘাতে পলাশ গুরুতর আহত হয়। পরে পলাশের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

আহত পলাশ বলেন, কয়েকদিন আগে ওরা পরিষদে জন্ম সনদ আনতে গেলে তখন সার্ভার সমস্যা ছিলো।আমি সেটা তাদের বুঝিয়ে বলি ও পরে একদিন আসতে বলি। তখন তারা ক্ষিপ্ত হভে চলে আসে। রাতে রুবেল,আল আমীন, ইমনসহ কয়েকজন আমার উপরে হামলা চালায়। আমাকে ছুরি দিয়ে কোপ মেরেছে। আমি ওদের বিচার চাই।’

পলাশের বন্ধু তারেক রহমান জানান,’আমরা এক সাথেই মিলাদ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করি। পলাশ কম্পিউটার মেরামত করার জন্য শিবচর যাবে তাই আমরা ওই বাড়ি থেকে ওকে একটু আগেই পাঠিয়ে দেই।বাড়ি থেকে বের হতে না হতেই ওরা তার উপরে হামলা চালায়।পলাশ চিৎকার করলে ওরা পালিয়ে যায়।পরে ওকে আমরা উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসি।’

বহেরাতলা দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বারী উকিল বলেন,’রাতে পলাশ শিবচর যাইতে ছিলো।সেখানে ওর উপরে কয়েকজন হামলা করে।পলাশ খুবেই আহত। আমি এ ঘটনায় জড়িতদের শাস্তি দাবী করছি।’

শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি সুব্রত গোলদার বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। বহেরাতলা দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সাহেব আমাকে জানান। এ বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

নিউজ শেয়ারঃ

আরও সংবাদ

জনপ্রিয় সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আলোচিত সংবাদ

নিউজ শেয়ারঃ
শিরোনামঃ
Verified by MonsterInsights