আজ ১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ও ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ এবং ১০ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

আবারো আলোচনায় কয়েদি পাপিয়া: কারাগারেও থেমে নেই দাপট

আবারো আলোচনায় কয়েদি পাপিয়া: কারাগারেও থেমে নেই দাপট

।।নিজস্ব প্রতিবেদক।।

বহুল আলোচিত মক্ষীরাণী শামীমা নুর পাপিয়ার নির্যাতনসহ বিভিন্ন অপকর্ম থেমে নেই কারাগারের ভিতরেও। গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় মহিলা কারাগারে এক নারী বন্দিকে মারধর ও ছিনতাইয়ের অভিযোগ উঠেছে ২৭বছরের সাজাপ্রাপ্ত কয়েদি যুব মহিলালীগের সাবেক নেত্রী শামীমা নুর পাপিয়ার বিরুদ্ধে। এ অভিযোগ তদন্তে এরই মধ্যে দুটি কমিটি গঠন করেছে কর্তৃপক্ষ। এবার তাকে কাশিমপুর থেকে কুমিল্লার কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গতকাল বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে প্রিজন ভ্যানে তাকে কুমিল্লায় পাঠানো হয়। কাশিমপুর মহিলা কেন্দ্রীয় কারাগারের (ভারপ্রাপ্ত) জেল সুপার মোঃ ওবায়দুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন- ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে তাকে স্থানন্তর করা হয়েছে।

কারা কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রায় ৪০মাস ধরে বন্দি পাপিয়া। ২৭বছরের সাজাপ্রাপ্ত কয়েদি হিসেবে জেল বিধি অনুযায়ী তাকে ‘রাইটার’ হিসেবে নিযুক্ত করা হয়। তিনি রুনা লায়লা নামে এক হাজতিকে সম্প্রতি নির্যাতন করেন। তার কাছ থেকে টাকা ছিনিয়ে নেন। এমন অভিযোগে রুনার ছোট ভাই জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। পরে গঠন করা হয়েছে দুটি তদন্ত কমিটি। তার প্রেক্ষিতে পাপিয়াকে কুমিল্লা কারাগারে পাঠানো হয়।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, নথি চুরির একটি মামলায় শিক্ষানবিস আইনজীবী রুনা লায়লাকে গত ১৬জুন কাশিমপুর মহিলা কারাগারে আনা হয়। কারাগারের সাধারণ ওয়ার্ডে নেওয়ার পর রুনার দেহ তল্লাশি করে কর্তব্যরত মেট্রন তার কাছে ৭ হাজার ৪০০টাকা পান।

ওই টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য পাপিয়া ও তার সহযোগী কয়েদিরা ১৯জুন রুনার ওপর অমানবিক নির্যাতন শুরু করেন। একপর্যায়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় রুনাকে মেঝেতে ফেলে রাখা হয়। এ নিয়ে কারাগারের ভেতরে কেস টেবিল বা সালিশ বৈঠকখানা বসে। সেখানে ত্রিমুখী সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন বন্দি ও দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। তবে পাপিয়ার ভয়ে সাধারণ কয়েদিরা রুনা লায়লার ওপর নির্যাতনের প্রতিবাদও করতে পারেননি।

আওয়ামীলীগ নেত্রী পরিচয়ে দেহ ব্যবসাসহ বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত থাকার পর পাপিয়া ৪০মাস হাজতবাসে এমন দাপট ও নির্যাতনের কারণে পাপিয়াকে কাশিমপুর কারাগার থেকে কুমিল্লা কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

নিউজ শেয়ারঃ

আরও সংবাদ

জনপ্রিয় সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আলোচিত সংবাদ

নিউজ শেয়ারঃ
শিরোনামঃ
Verified by MonsterInsights