আজ ২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ও ৭ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ এবং ১১ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

শেরপুরে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে অপহরণঃ আটক-১

  • In সারাবাংলা
  • পোস্ট টাইমঃ ২১ জুন ২০২৩ @ ০৬:৪৮ অপরাহ্ণ ও লাস্ট আপডেটঃ ২১ জুন ২০২৩@০৬:৪৮ অপরাহ্ণ
শেরপুরে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে অপহরণঃ আটক-১
ছবি- বিডিহেডলাইন্স

রায়হান পারভেজ
শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি।।

বগুড়া শেরপুরে মহাসড়কে ডিবি পুলিশের পরিচয়ে ছিনতাই চেষ্টাকালে স্থানীয় জনগণ একজনকে আটক করেছে। এ সময় এই ছিনতাইকারী চক্রের আরো পাঁচজন মাইক্রো গাড়ি যোগে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

বুধবার (২১জুন) বেলা আড়াইটার দিকে উপজেলার শাহবন্দেগী ইউনিয়নের শেরুয়া বটতলা এলাকার ঢাকা- বগুড়া মহাসড়কের শেরুয়া বটতলা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। পরে সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে স্থানীয় জনগণ আটক ব্যক্তিকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।

আটক ভূয়া ডিবি পুলিশ সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার চর আঙ্গারু গ্রামের শরিফুল ইসলাম (৪০) বলে জানা গেছে। উপস্থিত স্থানীয় জনগণ বিডি হেডলাইন্সকে বলেন, বেলা আড়াইটার দিকে শেরুয়া বটতলার ওই স্থানে সাদা রংয়ের একটি হাইস (মাইক্রো) গাড়ি থেকে তিনজন নেমে আসে। এ সময় শেরুয়া বাজারের দিকে আসা সিএনজিচালিত একটি অটোরিকশায় হাতে ব্যাগ থাকা এক যাত্রীকে ডিবি পুলিশ পরিচয় জোরপূর্বক হাইস গাড়িতে তোলার চেষ্টা করে। হাতে ব্যাগ থাকা ওই সিএনজির যাত্রী চিৎকার দিলে আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করে। স্থানীয় লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে এগিয়ে এলে ছিনতাই কাজে জড়িত ব্যক্তিরা গাড়ি নিয়ে দ্রুত সিরাজগঞ্জের দিকে চলে যায়। এ সময় শরিফুল ইসলাম নামে ওই ছিনতাই চক্রের ভূয়া ডিবি পুলিশকে আটক করে স্থানীয় জনতা। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ গেলে আটক ব্যক্তিকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

আটক শরিফুল ইসলাম পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে, সে আগে একটি ওষুধ কোম্পানিতে চাকরি করতো। পাবনার আমিনপুরে গত সেপ্টেম্বর মাসে অনুরূপ একটি ছিনতাই ঘটনার সময় সে গ্রেপ্তার হয়েছিল। গত একমাস আগে সে আদালত থেকে জামিনে বের হয়ে আসে।

থানা পুলিশ সূত্রে আরো জানা যায়, আজ বুধবার শেরপুরে গোয়েন্দা পুলিশের পরিচয়ে মহাসড়কে এমন ছিনতাইয়ের ঘটনায় মোট ৬ জন ছিল। এদের মধ্যে শরিফুলসহ আরো দুজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। আজ বুধবার বেলা সাড়ে ১২ টায় উপজেলার সীমাবাড়ি বাজার এলাকায় একটি ব্যাংকে টাকা নিয়ে কারা বের হচ্ছে এমন অনুসন্ধান চালায়। এখানে ব্যর্থ হয়ে পরে এই ছিনতাইকারী চক্র চলে আসে শেরপুর শহরে। জনৈক বাবু নামে একজন সোর্সের মাধ্যমে তারা নিশ্চিত হয়েছিল শহরের বেশ কয়েকটি ব্যাংকে টাকা নিয়ে বের হওয়ার বড় কোনো পার্টি নেই। এ কারণে তারা ফিরছিল সিরাজগঞ্জের দিকে। ফেরার পথে শেরুয়া বাজার এলাকায় সিএনজি চালিত অটোরিকশা গাড়িতে একজন ব্যক্তির হাতে বড় ব্যাগ দেখে তাদের সন্দেহ হয় এই ব্যক্তির কাছে ব্যাগে মোটা অংকের টাকা থাকতে পারে। এ কারণে তারা এই ব্যক্তিকে জোরপূর্বক তাদের হাইস গাড়িতে তুলে নেওয়ার চেষ্টা করে।

শেরপুর থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) রবিউল ইসলাম বলেন, শেরপুরের মহাসড়কে এর আগেও গোয়েন্দা পুলিশের পরিচয়ে ছিনতাইকারী চক্র ব্যবসায়ির টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। আটক ওই ব্যক্তি শেরপুর থানা পুলিশের কাছে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে উপরোক্ত তথ্য স্বীকার করেছে।

জানতে চাইলে শেরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাবু কুমার সাহা বলেন, আটক ব্যক্তিসহ এই ছিনতাইয়ের সাথে যারা জড়িত তারা সকলেই গোয়েন্দা পুলিশের ভুয়া পরিচয় দিয়ে মহাসড়কের ছিনতাই ঘটনার চেষ্টা করেছিল। এ ঘটনায় আটক ব্যক্তিসহ পালিয়ে যাওয়া অন্যান্যদের বিরুদ্ধে থানায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে। এ ঘটনার সাথে আর কারা কারা জড়িত তাদের নাম অনুসন্ধান চলছে। জড়িত প্রত্যেককেই আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করা হবে।

নিউজ শেয়ারঃ

আরও সংবাদ

জনপ্রিয় সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আলোচিত সংবাদ

নিউজ শেয়ারঃ
শিরোনামঃ
Verified by MonsterInsights