আজ ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ও ১৩ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ এবং ১৬ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

রংপুর বিভাগের ৮ জেলার ৩৩ টি আসন থেকে ২৭৭ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা

  • In সারাবাংলা
  • পোস্ট টাইমঃ ৩ ডিসেম্বর ২০২৩ @ ১১:১৭ অপরাহ্ণ ও লাস্ট আপডেটঃ ৩ ডিসেম্বর ২০২৩@১১:১৭ অপরাহ্ণ
রংপুর বিভাগের ৮ জেলার ৩৩ টি আসন থেকে ২৭৭ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা

।।রংপুর ব্যুরো।।

কেউ চায় নতুন করে সাজাতে, আবার কেউ চায় পুনরাবৃত্তি। কেউ বলছেন আবারও নির্বাচিত হলে বাকি কাজ সম্পন্ন করতে, কেউ বলছেন এলাকার উন্নয়ন করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কথা। ভোটাররা বলছেন যোগ্য নেতা এলাকার উন্নয়ন, আবার কেউ বলছে সবার অংশগ্রহণ করলে হতো সুষ্ঠু নির্বাচন।

২০২৪ সালের ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। ৩০ নভেম্বর মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ হয়েছে উৎসবমুখর পরিবেশে প্রার্থীরা তাদের সমার্থকদের সাথে নিয়ে নিজ নিজ এলাকার রিটেনিং কর্মকর্তাদের কাছে তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। রংপুর জেলা ৬টি আসন থেকে দলীয় ও স্বতন্ত্র এবং তৃতীয় লিঙ্গের প্রার্থীসহ মোট ৪৯ জনপ্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এছাড়াও রংপুর বিভাগের ৮ জেলার ৩৩ টি আসন থেকে ২৭৭ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

প্রার্থীরা উৎসবমুখর পরিবেশে তাদের সমর্থকদের সাথে নিয়ে এসে নিজ নিজ এলাকার রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কাছে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। মনোনয়নপত্র জমা দিয়ে প্রার্থীরা নিজ এলাকার উন্নয়নের কথা বলার পাশাপাশি জনসাধারণের জন্য কল্যাণকর যেকোনো ধরনের কাজ করার কথা বলেছেন। আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা চেয়েছেন তারা আবার নির্বাচিত হয়ে প্রধানমন্ত্রীকে ক্ষমতায় রেখে দেশকে আরো এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার এবং জাতীয় পার্টির প্রার্থীরা বলেছেন তাদের হারিয়ে যাওয়া আসনগুলো আবারো ফিরে পেয়ে জনগণের কল্যাণে কাজ করে এলাকার উন্নয়ন করার। তবে রংপুর তিন আসনের তৃতীয় লিঙ্গের একমাত্র প্রার্থী রংপুরের যোগ্য কোন নেতাই নেই। তিনি নির্বাচিত হলে এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন করবেন। ভোটাররা বলছেন এলাকার যোগ্য প্রার্থীকে আমরা ভোট দেব তবে আমরা চাই আর যেন দ্রব্যমূলের ঊর্ধ্বগতি না থাকে আমরা যেন শান্তিতে থাকতে পারি আবার কেউ বলছেন সব দল অংশগ্রহণ না করলে এই নির্বাচন করে কোন লাভ হবে না।

স্বতন্ত্র প্রার্থী রংপুর ৩ (সদর) আনোয়ারা ইসলাম রাণী বলেন,রংপুরে কোন নেতা নেই। তাই রংপুরের উল্লেখযোগ্য কোন উন্নয়ন হয়নি। এখানকার যারা এমপি ছিলেন তারা এলাকায় থাকেননি এলাকার লোকজন তাদের চেনেন না। আমি রংপুর ৩ আসনের এমপি নির্বাচিত হলে সকলকে সাথে নিয়ে শিল্প কলকারখানাসহ এলাকার ব্যাপক উন্নয়নে আত্মনিয়োগ করব।

আমার যোগ্য নেতা চাই। যিনি এলাকার উন্নয়ন করতে পারবেন জিনিসপাতি দাম কমাতে পারবেন এলাকার গরিব মানুষের কথা বলবেন আমরা তেমন নেতাকেই ভোট দিতে চাই। সব দলের অংশগ্রহণে শান্তিপূর্ণ অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হোক এটাই আমরা কামনা করি। কোন দলকে বাদ দিয়ে নির্বাচন করলে সে নির্বাচনটি কেমন হবে সেটিও ভাবা দরকার।

পার্টি মনোনীত প্রার্থী রংপুর ১ (গঙ্গাচড়া) আসিফ শাহরিয়ার জানান,আমি জাতীয় পার্টি পরিবারের সন্তান আমার একটি ক্লিন ইমেজ রয়েছে আমি একবার এমপি হয়েছিলাম কখন আমি কোন দুর্নীতি করিনি জাতীয় পার্টির বা আমার পরিবারে কোন ক্ষতি হোক সেটা আমি চাইনা। এই এলাকার লোক আমাকে ভালোবাসে আমিও তাদের ভালবাসি সুস্থ নির্বাচন হলে আমি বিপুল ভোটে বিজয়ী হব।

আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী রংপুর ৬ (পীরগঞ্জ) স্পীকার শিরিন শারমিন চৌধুরী বলেন, সবার অংশগ্রহণের একটা অবাক ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এখানে কোন সমস্যা নেই। অনেক দলের মতের প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। আমাকে পীরগঞ্জের মানুষ ভালোবাসেন আমি একবার এমপি ছিলাম আবারো পীরগঞ্জের মানুষের ভালোবাসা নিয়ে এগিয়ে যেতে চাই।

দেশের অনেক উন্নয়ন হয়েছে দেশ অনেক এগিয়ে যাচ্ছে। এলাকার মানুষ আবার নৌকা মার্কাতেই ভোট দিবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা আবারও ক্ষমতায় থেকে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে বলে মনে করছেন আওয়ামী-লীগ। তবে নির্বাচনে দেখার অপেক্ষায় সবাই কাকে রাখবেন জনগণ।

নিউজ শেয়ারঃ

আরও সংবাদ

জনপ্রিয় সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আলোচিত সংবাদ

নিউজ শেয়ারঃ
শিরোনামঃ
Verified by MonsterInsights