আজ ১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ও ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ এবং ১০ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

নায়ক ফারুক নেইঃ এক মহানায়কের চিরবিদায়!!

  • In অন্যান্য, বিনোদন
  • পোস্ট টাইমঃ ১৫ মে ২০২৩ @ ০১:২৬ অপরাহ্ণ ও লাস্ট আপডেটঃ ২০ মে ২০২৩@০৬:৩১ অপরাহ্ণ
নায়ক ফারুক নেইঃ এক মহানায়কের চিরবিদায়!!

বিডিহেডলাইন্স ডেস্ক:

ঢাকাই চলচ্চিত্রের ‘মিয়া ভাই’ খ্যাত বরেণ্য চিত্রনায়ক ও ঢাকা-১৭ আসনের সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ওরফে ফারুক আর নেই। আজ সোমবার (১৫ মে) বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৮টায় সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন ফারুকের ভাতিজি আসমা পাঠান রুম্পা।

আসমা পাঠান রুম্পা বলেন— ‘আজ সকাল সাড়ে ৮টা নাগাদ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন চাচ্চু। আজ ফ্লাইট না থাকায় আগামীকাল তার মরদেহ দেশে আনা হবে।

২০২১ সালের ৪মার্চ নিয়মিত চেকআপের জন্য সিঙ্গাপুর যাতায়াত করতেন নায়ক ফারুক। সেখানে দীর্ঘ চিকিৎসায় তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে তাকে ভর্তি  করা হয়। উচ্চ রক্তচাপ, মস্তিষ্ক, স্নায়ুতন্ত্রের নানা সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি।

প্রায় চার মাস তিনি ছিলেন ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ)। সেমি কোমায় কেটেছে আরও চার মাস। কয়েক মাস তার শারীরিক অবস্থার কখনো উন্নতি, আবার কখনো অবনতি হয়েছে। তবে কখনো হাল ছাড়েননি তার পরিবারের সদস্যরা, চালিয়েছেন চিকিৎসা। অবশেষে সব চেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে সবাইকে কাঁদিয়ে পরপারে পাড়ি জমালেন ফারুক।

১৯৭১ সালে এইচ আকবর পরিচালিত ‘জলছবি’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে ফারুকের নায়ক হিসেবে চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে। ‘লাঠিয়াল’ ‘সুজন সখী’ ‘নয়ন মণি’ ‘সারেং বৌ’ ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’ ‘সাহেব’ ‘আলোর মিছিল’ ‘দিন যায় কথা থাকে’ ‘মিয়া ভাই’সহ শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি।

‘মিয়া ভাই’ খ্যাত এই চিত্রনায়ক ‘লাঠিয়াল’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য ১৯৭৫ সালে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। চলচ্চিত্রে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ২০১৬ সালে আজীবন সম্মাননা লাভ করেন তিনি। নায়ক ফারুকের মৃত্যুতে চলচ্চিত্র শিল্পে শোকের মাতম বইছে।

নিউজ শেয়ারঃ

আরও সংবাদ

জনপ্রিয় সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আলোচিত সংবাদ

নিউজ শেয়ারঃ
শিরোনামঃ
Verified by MonsterInsights