আজ ২৪শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ও ১০ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ এবং ১৮ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

লোহাগড়ায় পৌর স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতির নেতৃত্বে হামলা, থানায় মামলা দায়ের

লোহাগড়ায় পৌর স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতির নেতৃত্বে হামলা, থানায় মামলা দায়ের
ছবি- বিডিহেডলাইন্স

কাজী ইমরান
লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি।।

নড়াইলের লোহাগডা পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মাহমুদুল হাসান সম্রাটের নেতৃত্বে ৬/৭ জনের একদল দুর্বৃত্ত লোহাগডা মধুমতি হেলথ কেয়ারের মালিক নিজাম উদ্দিন তুষার (৪২)’র ওপর হামলা চালিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে। স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনায় লোহাগড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করা হলেও পুলিশ কাউকে এখনো আটক করতে পারে নাই।
আহত তুষার লোহাগড়া কলেজপাড়া এলাকার মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফ উদ্দীনের ছেলে এবং মধুমতি হেলথ্ কেয়ারের মালিক।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন তুষার সাংবাদিকদের জানান, গত বৃহস্পতিবার (১৫জুন) পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মাহমুদুল হাসান সম্রাট একজন রোগীকে আমার পরিচালনাধীন মধুমতি হেলথ কেয়ারে ডাক্তার দেখাতে আসেন। এসেই অভিযুক্ত সম্রাট প্রতিষ্ঠানের সিরিয়াল ভঙ্গ করে সবার আগে তার রোগীকে ডাক্তার দেখানোর জন্য তুষারের উপর চাপ দেয়। এ সময় তুষার বিনয়ের সাথে সম্রাটকে বলেন, ৪/৫ জন রোগী সিরিয়ালে আছে একটু অপেক্ষায় করেন, আমি আপনার রোগী দেখিয়ে দিব। তিনি আরও বলেন, অপেক্ষমান রোগীরা অনেক সময় ধরে বসে আছে, আমি যদি সিরিয়াল ভঙ্গ করে আপনার রোগীকে দেখাই তাহলে আমার প্রতিষ্ঠানের সুনাম ক্ষুন্ন হবে। এজন্য দয়া করে একটু অপেক্ষা করুন। পরবর্তীতে সম্রাট তার রোগীকে ডাক্তার দেখানোর পর মধুমতি হেলথ কেয়ার থেকে চলে যান।

এরই জের ধরে পরদিন শুক্রবার (১৬জুন) সন্ধ্যায় পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মাহমুদুল হাসান সম্রাট চা খাওয়ার কথা বলে প্রতিষ্ঠান থেকে তুষারকে বাইরে ডেকে নিয়ে আসে। এ সময় তুষার কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই সম্রাটের সহযোগী রিয়াজুল, হানিফ, সুমন, ইয়ামিন, রুবেল সহ অজ্ঞাত ৭/৮ জন দুর্বৃত্ত লোহার রড, হাতুড়ি, চাইনিজ কুড়াল, লাঠিসোঁটা নিয়ে তাকে বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। এ সময় দুর্বৃত্তরা তুষারের কাছে থাকা নগদ ৭২ হাজার টাকা ও গলায় থাকা একটি সোনার চেইন ছিনিয়ে নিয়ে যায়। তুষারের চিৎকারে আশ পাশের লোকজন এগিয়ে এলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। পরে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত পৌর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি সম্রাটের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তুষারের ওপর সংঘবদ্ধভাবে কোন হামলার ঘটনা ঘটেনি, তবে তার সাথে আমার হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে বলে তিনি দাবী করেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মধুমতী হেলথ কেয়ার ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক তুষার আহমেদ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার অন্যতম আসামি ও বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর এবং লোহাগড়া উপজেলার কৃতিসন্তান মরহুম লেফটেন্যান্ট এম এম মতিউর রহমানের ভাগিনা।

এ ঘটনায় তুষার বাদী হয়ে শনিবার দুপুরে লোহাগড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং- ২৬/১৩৫, তারিখ ১৭/০৬/২০২৩। মামলার তদন্তকারীকারী কর্মকর্তা লোহাগড়া থানার এস আই কে, এম তৌফিক আহমেদ টিপু জানান, এজাহারভূক্ত আসামীদের আটকের জন্য পুলিশি অভিযান শুরু হয়েছে।

এ বিষয়ে লোহাগডা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ নাসির উদ্দীন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে এবং অভিযুক্তদের আটকের জন্য অভিযান শুরু হয়েছে।

নিউজ শেয়ারঃ

আরও সংবাদ

জনপ্রিয় সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আলোচিত সংবাদ

নিউজ শেয়ারঃ
শিরোনামঃ
Verified by MonsterInsights