আজ ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ও ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ এবং ১২ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

কিউবায় বসে গোয়েন্দাগিরি করছে চীন: যুক্তরাষ্ট্র

  • In আন্তর্জাতিক
  • পোস্ট টাইমঃ ১১ জুন ২০২৩ @ ১০:৫৯ পূর্বাহ্ণ ও লাস্ট আপডেটঃ ১১ জুন ২০২৩@১০:৫৯ পূর্বাহ্ণ
কিউবায় বসে গোয়েন্দাগিরি করছে চীন: যুক্তরাষ্ট্র

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসনের এক কর্মকর্তা অভিযোগ করেছেন, চীন বেশ কিছু সময় ধরে কিউবা থেকে গোয়েন্দা কার্যক্রম চালাচ্ছে। ২০১৯ সালে বেইজিং কিউবার গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ কেন্দ্রের আধুনিকায়ন করে বলেও দাবি করেন তিনি। কিউবায় চলমান গোয়েন্দা কার্যক্রম নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশের পর এই মন্তব্য করেন ওই কর্মকর্তা।

গত বৃহস্পতিবার ওয়ালস্ট্রিট জার্নাল এক প্রতিবেদনে জানায় কিউবার সঙ্গে গোপন এক চুক্তিতে পৌঁছেছে চীন। দ্বীপরাষ্ট্রটিতে ইলেক্ট্রনিক আড়িপাতার যন্ত্র উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপন করতে এই চুক্তি হয়েছে। ফ্লোরিডা থেকে ওই কেন্দ্রের দূরত্ব হবে মাত্র একশ মাইল। তবে যুক্তরাষ্ট্র এবং কিউবা ওই প্রতিবেদন নিয়ে জোরালো সন্দেহ পোষণ করেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাইডেন প্রশাসনের এক কর্মকর্তা বলেন মিডিয়ার বর্ণনা, ‘আমাদের বোঝাপড়ার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়’। তবে ওই প্রতিবেদন কেন ভুল বা কিউবায় চীনের নতুন কারখানা স্থাপনের উদ্যোগের কোনো বিস্তারিত কিছু বলেননি তিনি।

ওই কর্মকর্তা জানান, জো বাইডেন দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে বিশ্বজুড়ে গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহের অবকাঠামো শক্তিশালী করার উদ্যোগ নিয়েছে বেইজিং। তিনি বলেন, এটা চলমান ইস্যু, এখন তৈরি হতে থাকা নয়। চীন ২০১৯ সালে কিউবায় গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ কেন্দ্র আধুনিকায়ন করে। এটা গোয়েন্দা নথিতে ভালোভাবেই যুক্ত আছে।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে ওয়াশিংটনের চীনা দূতাবাস শুক্রবারের বিবৃতি খতিয়ে দেখার পরামর্শ দেয়। সেদিন চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে গুজব ও মিথ্যা ছড়ানোর অভিযোগ করে। কিউবায় গোয়েন্দা স্টেশন প্রসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রকে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর হ্যাকার সাম্রাজ্য আখ্যা দেয় চীন।

কিউবা সরকার অবশ্য তাৎক্ষণিকভাবে এ বিষয়ে মন্তব্য করার অনুরোধে সাড়া দেয়নি। তবে দেশটির সহকারি পররাষ্ট্রমন্ত্রী কার্লোস ফার্নান্দেজ ডি কসিও ওই প্রতিবেদনকে ‘সম্পূর্ণ জঘন্য এবং ভিত্তিহীন’ বলে উড়িয়ে দেন। এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে কিউবার বিরুদ্ধে ওয়াশিংটনের কয়েক দশকের পুরোনো অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞাকে ন্যায্যতা দেয়ার চেষ্টা হয়েছে বলেও অভিযোগ তোলেন তিনি। কিউবার এই মন্ত্রী আবারও জানিয়ে দেন লাতিন আমেরিকা ও ক্যারিবীয় অঞ্চলে সব ধরনের বিদেশি সামরিক উপস্থিতিকে প্রত্যাখ্যান করে তার দেশ।

ইডে/ কেএইচ/১১০৬২৩/১০;৫৯

নিউজ শেয়ারঃ

আরও সংবাদ

জনপ্রিয় সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আলোচিত সংবাদ

নিউজ শেয়ারঃ
শিরোনামঃ
Verified by MonsterInsights