আজ ২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ও ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ এবং ১৬ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

ফের হিজাব টহল শুরু ইরানি পুলিশের

  • In আন্তর্জাতিক
  • পোস্ট টাইমঃ ১৭ জুলাই ২০২৩ @ ০৯:৪১ পূর্বাহ্ণ ও লাস্ট আপডেটঃ ১৭ জুলাই ২০২৩@০৯:৪১ পূর্বাহ্ণ
ফের হিজাব টহল শুরু ইরানি পুলিশের

।।ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক।।

পোশাক বিধি এবং হিজাব পরা মেনে চলতে নারীদের বাধ্য করতে ফের টহল শুরু করতে যাচ্ছে ইরানের পুলিশ। রাষ্ট্রীয় মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, নীতি পুলিশ আবারও রাজপথে নেমে ইরানের হিজাব আইন প্রয়োগ করবে। রবিবার এই ঘোষণা দিয়েছেন পুলিশের মুখপাত্র।

তেহরানে পোশাকবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে আটক হওয়ার পর মাশা আমিনি নামে এক নারীর পুলিশ হেফাজতে মৃত্যুর ১০ মাস পর ফের রাজপথে নামছে পুলিশ। ওই মৃত্যুর ঘটনায় দেশজুড়ে তীব্র প্রতিবাদ বিক্ষোভ শুরু হয়। এর জেরে টহল স্থগিত রাখা হয়। তবে বেশ কিছুদিন ধরে কট্টর ইসলামপন্থীরা টহলটি ফেরানোর দাবি তুলে আসছিলেন।

ইরানের শরিয়া আইন অনুযায়ী নারীদের হিজাব পরা বাধ্যতামূলক। এছাড়া তাদের লম্বা এবং ঢিলেঢালা পোশাক পরতে হবে যাতে শরীরের অবয়ব বোঝা না যায়। এই আইনের প্রতি শ্রদ্ধা দেখানো নিশ্চিত করে নীতি পুলিশ। যারা যথাযথ পোশাক পরে না তাদের আটকও করে তারা।

পুলিশ মুখপাত্র সায়িদ মোন্তাজেরোলমাহদি জানান, টহলের সময় কর্মকর্তারা প্রথমে নারীদের আইনের প্রতি শ্রদ্ধা দেখাতে সতর্ক করবেন। তারা আদেশ অমান্য করলে আইনি পদক্ষেপ নিতে পারবে কর্মকর্তারা।

গত বছরের অক্টোবরে পরিবারের সঙ্গে তেহরান ভ্রমণে যান ২২ বছরের মাশা আমিনি। যথাযথভাবে হিজাব না পরায় অভিযুক্ত করে তাকে আটক করে নীতি পুলিশ। ‘শিক্ষা দিতে’ একটি আটককেন্দ্রে নিয়ে যাওয়ার পর মৃত্যু হয় তার। ওই সময়ে কর্মকর্তারা আমিনির মাথায় লাঠি দিয়ে আঘাত করেছেন বলে অভিযোগ ওঠে। এই ঘটনার প্রতিবাদে ইরানে ব্যাপক বিক্ষোভ শুরু হয়। সহিংস সেই সরকার বিরোধী বিক্ষোভে প্রায় ছয়শ মানুষের মৃত্যু হয়।

বিক্ষোভের পর ইরানের বহু নারী হিজাবই পরা বাদ দিয়ে দেন। ১৯৭৯ সালে বিপ্লবের পর এটাই ছিল ইরানের শরিয়া আইনের প্রতি সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের বিভিন্ন ভিডিও থেকে বোঝা যাচ্ছে সম্প্রতি হিজাব বাদ দেয়া নারীর সংখ্যা প্রকাশ্য স্থানগুলোতে বাড়তে শুরু করেছে। তবে ইরানি কর্তৃপক্ষও শাস্তি কঠোর করেছে। হিজাব আইন না মানলে ব্যবসা বন্ধ করে দিতে বাধ্য করছে কর্তৃপক্ষ।

নিউজ শেয়ারঃ

আরও সংবাদ

জনপ্রিয় সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আলোচিত সংবাদ

নিউজ শেয়ারঃ
শিরোনামঃ
Verified by MonsterInsights