আজ ২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ও ৭ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ এবং ১১ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

নন্দীগ্রামে সড়কের উন্নয়নে দুর্ভোগের অবসান

নন্দীগ্রামে সড়কের উন্নয়নে দুর্ভোগের অবসান

নজরুল ইসলাম দয়া
নন্দীগ্রাম (বগুড়া)প্রতিনিধি।।

বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকার গুরুত্বপূর্ণ সড়কের উন্নয়নকাজ করায় বগুড়া ও নওগাঁ জেলার চার উপজেলার হাজার হাজার মানুষের দুর্ভোগের অবসান ঘটছে। খানাখন্দে পরিনত সড়কে জোড়া-তালি নয়, মানসম্মত কার্পেটিং কাজ করা হচ্ছে। কাঁচা সড়কগুলোতেও উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। দুর্গাপুর জিসি নশরতপুর জিসি ভায়া কুন্দগ্রাম সড়কের দেওগ্রাম থেকে নিমাইদিঘী পাকার মাথা পর্যন্ত ২ কিলো ৬৫৯ মিটার সড়কের রক্ষণাবেক্ষণের কার্পেটিং কাজ গতকাল সোমবার শেষ হয়েছে।

একই সড়কের নিমাইদিঘী পাকার মাথা থেকে কুন্দগ্রাম সংযোগ পাকার মাথা পর্যন্ত দেড় কিলোমিটার কাঁচা সড়কের নতুন কার্পেটিং কাজ শুরু হয়েছে। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) বাস্তবায়নে ২ কোটি ৭৬ লাখ ৪১ হাজার ৪৪৮ টাকা ব্যয়ে এই সড়কের উন্নতিকাজ চলমান রয়েছে। সম্প্রতি এ কাজের উদ্বোধন করেন বগুড়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম রেজাউল করিম তানসেন। চলমান উন্নয়নকাজ মানসম্মত হচ্ছে কিনা, সে ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলীর দপ্তরের কর্মকর্তারা প্রতিদিনই সরেজমিনে গিয়ে উন্নয়নকাজ তদারকি করছেন।

রোববার উন্নয়নকাজ পরিদর্শন করেন উপজেলা প্রকৌশলী শা-রিদ শাহনেওয়াজ। সঙ্গে ছিলেন উপজেলার থালতা-মাঝগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আব্দুল মতিন এবং ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মনির এন্টারপ্রাইজের সত্বাধিকারি সিরাজুল হক। জন-গুরুত্বপূর্ণ এই সড়ক দিয়ে নন্দীগ্রাম উপজেলাসহ কাহালু, আদমদীঘি, নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার হাজার হাজার মানুষ ও শতশত যানবাহন চলাচল করে। এই সড়কটি গুরুত্বপূর্ণ সংযোগ সড়ক হিসেবে পরিচিত।

নন্দীগ্রাম উপজেলার চৌমাথা বাজারের ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান ও ভ্যানচালক আব্দুর রহমান জানান, দেওগ্রাম থেকে নিমাইদিঘী পাকার মাথা পর্যন্ত সড়কের ধারে এবং বিভিন্ন জায়গায় কার্পেটিং নষ্ট হয়ে খানাখন্দে গর্ত সৃষ্টি হয়েছিলো। নিমাইদিঘী পাকার মাথা থেকে কুন্দগ্রাম সংযোগ পাকার মাথা পর্যন্ত কাঁচা সড়কটি বৃষ্টির সময় কাদামাটিতে মানুষের দুর্ভোগের কারণ হতো। সড়কে নতুন কার্পেটিং কাজ শুরু হওয়ায় মানুষের মাঝে স্বস্তি ফিরেছে। সড়ক দিয়ে নওগাঁ জেলা শহর থেকে আবাদপুকুর, সেখান থেকে কুন্দগ্রাম হয়ে দেওগ্রাম-দুর্গাপুর। সেখান থেকে কাহালু উপজেলা সদর হয়ে বগুড়া শহর এবং বগুড়া-রংপুর ও বগুড়া-নাটোর মহাসড়কে সংযোগ রয়েছে। দুর্গাপুর-নশরতপুর-কুন্দগ্রাম সড়ক দিয়ে ট্রাক, সিএনজি, ইজিবাইক ও ভ্যান চলাচল করে। কৃষকেরা বাড়ি থেকে ধান নিয়ে ভ্যানে করে বিভিন্ন হাটে যায়। এছাড়া ধান ও আলুসহ মালবাহী ভারী যানবাহন চলাচল করে।

জানা গেছে, দুর্গাপুর-নশরতপুর-কুন্দগ্রাম সড়কের দেওগ্রাম থেকে নিমাইদিঘী পাকার মাথা পর্যন্ত ২ কিলো ৬৫৯ মিটার সড়ক রক্ষণাবেক্ষণে ১ কোটি ২২ লাখ ৯৭ হাজার ৫৮৭ টাকা ব্যয়ে কার্পেটিং কাজ শেষ হয়েছে এবং নিমাইদিঘী পাকার মাথা থেকে কুন্দগ্রাম সংযোগ পাকার মাথা পর্যন্ত কাঁচা সড়ক ১ কোটি ৫৩ লাখ ৪৩ হাজার ৮৬১ টাকা ব্যয়ে নতুন কার্পেটিং কাজ শুরু হয়েছে।

নিউজ শেয়ারঃ

আরও সংবাদ

জনপ্রিয় সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আলোচিত সংবাদ

নিউজ শেয়ারঃ
শিরোনামঃ
Verified by MonsterInsights